Story

গোপন কথা! এইজন্য অক্ষয় কুমার সব সময় তার মেয়ের মুখ ঢেকে রাখেন মিডিয়ার থেকে

বলিউডের প্রথম সারির অভিনেতাদের মধ্যে অক্ষয় কুমার একজন। কাজ করার এনার্জি এবং ফিটনেসের দিক দিয়েও তিনি প্রথম সারিতেই আছেন। প্রথম সারির অভিনেতা হতে গেলে যথেষ্ট স্ট্রাগল করতে হয়। অক্ষয় কুমারের ক্ষেত্রেও তার অন্যথা হয়নি।

শুরুর দিন থেকে অনেক ওঠানামার মধ্য দিয়ে গেছেন অভিনেতা। পরে তিনি তার অভিনয়, ফিটনেস, এনার্জি, স্মার্টনেস দিয়ে নিমেষেই জয় করে ফেলেছেন বহু দর্শকের মন নজর কেড়েছেন অনেক তারকাদের।

প্রায় ৩০ বছর ধরে অক্ষয় কুমার এই ইন্ডাস্ট্রিতে অভিনয় করছেন। বর্তমানে তার বয়স ৫৩। এই বয়সেও তার এনার্জি ও ফিটনেস টেক্কা দেয় বর্তমানের অভিনেতাদের। চিরকাল যেসব স্টান্ট করতে অভিনেতারা ভয় পান সেইসব স্টান্ট খুব সহজেই করে ফেলেন অক্ষয় কুমার।

অক্ষয় কুমার অভিনয়ে পারদর্শী সে নিয়ে কোনো সন্দেহই নেই। অভিনেতা যেকোনো চরিত্রে অভিনয় করতে সাবলীল। রোমান্টিক, অ্যাকশন, থ্রিলার যেকোনো ধরনের সিনেমাতে তিনি সুপারহিট। ইন্ডাস্ট্রিতে বহু চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে তিনি খুব সাবলীলভাবে অভিনয় করেছেন যা দর্শক মহলে বেশ প্রশংসা পেয়েছে।

১৯৯১ সালে ‘সৌগান্ধ’ সিনেমা দিয়েই তার বলিউড ইন্ডাস্ট্রির পথচলার শুরু। তবে এই সিনেমাটি ওই বছর মুক্তি পায়নি। পরের বছর মুক্তি পেয়েছিল। আর ওই বছরই মুক্তি পেয়েছিল ‘খিলাড়ি’ নামক সিনেমাটি।

এরপর থেকে তাকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি। অভিনয় জগতে তার গাড়ি এগিয়ে গেছে গড় গড় করে। এখনো তিনি সুপার ডুপার হিট ফিটনেসে আঁচ পড়েনি একটুও। শুরুর দিন থেকে তিনি তার ফিটনেস এবং অভিনয় নিয়ে বেশ সচেতন। তিনি তার অভিনয়ের জন্য অনেক অ্যাওয়ার্ডও পেয়েছেন।

অন্যান্য তারকারা যেখানে নিজের সন্তানদের সাথে ছবি দেন প্রায় সেখানে অক্ষয় কুমার তার ছেলেমেয়েকে বরাবরই ক্যামেরা থেকে দূরে রেখেছেন।

অক্ষয় কুমার তোর অভিনয় জীবনে সাফল্য পাওয়ার পর অভিনেত্রী টুইংকেলের সঙ্গে (রাজেশ খান্নার মেয়ে) বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। বর্তমানে তারা ২ সন্তানের বাবা-মা। কিন্তু ক্যামেরা সোশ্যাল মিডিয়া থেকে নিজের ছেলেমেয়েকে দূরে রাখতেই বেশি পছন্দ করেন অক্ষয় কুমার।

ছেলে আরভকে সোশ্যাল মিডিয়ায় মাঝেমধ্যে দেখা গেলেও মেয়ে নিতারাকে বরাবরই এসবের থেকে দূরে রেখেছেন অভিনেতা কারণ তিনি চান না তার মেয়ের পেছনে ক্যামেরাম্যানদের লাইন লেগে যাক।

অক্ষয় কুমার খুব ডিসিপ্লিন্ড ওয়েতে কাজ করেন। অভিনেতা কে লেট নাইট পার্টিতে খুব একটা দেখা যায় না। রাত আটটার পর তিনি কাজ করেন খুব একটা পছন্দ করেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button