টলিউড

ডিভোর্স দিয়েও সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে ফিরতে হয়েছিল তার কাছে! ৭১ এ পা দিলেন সেই স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত

১৯৮৪ সালে বাংলা সিনেমার দর্শকরা বিখ্যাত পরিচালক সত্যজিৎ রায়ের জনপ্রিয় সিনেমা ঘরে-বাইরে তে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং ভিক্টর বন্দ্যোপাধ্যায় এর পাশে চুটিয়ে অভিনয় করতে দেখেছিলেন এক শক্তিশালী বাঙালি অভিনেত্রীকে, নাম স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত।

তার অভিনয় দক্ষতার মাধ্যমে শুধুমাত্র পরিচালক সত্যজিৎ রায়ই নন, পাশাপাশি মুগ্ধ হয়েছিল বাংলা সিনেমাপ্রেমী রাও।কিন্তু তারপরও অনেক বছর বড় পর্দায় অনুপস্থিত ছিলেন তিনি। তবে অভিনয় তিনি ছাড়েননি, কেবলমাত্র পাল্টে গেছিল অভিনয়ের মাধ্যমে। সিনেমার বদলে বাংলা নাটকের মঞ্চ দাপিয়ে বেড়াচ্ছিলেন এই অভিনেত্রী।

শেষ পর্যন্ত পরিচালক নন্দিতা রায় ও শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় এর পরিচালনায় ‘বেলাশেষে'” সিনেমায় অভিনয়ের মাধ্যমে বড় পর্দায় ফিরে ছিলেন তিনি। আবারো সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের পাশে চুটিয়ে অভিনয় করেছিলেন। গল্পে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে স্বাতীলেখাকে ডিভোর্স দিয়েও ফিরতে হয়েছিল পর্দার স্ত্রীয়ের কাছে।

গতকাল বাংলা সিনেমার সেই অন্যতম শক্তিশালী অভিনেত্রী স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত পদার্পণ করলেন ৭১ বছরে। টলিউডের একাধিক পরিচালক থেকে শুরু করে তার সহকর্মীরা নেট মাধ্যমে তাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে ভোলেননি।

পরিচালক শিবপ্রসাদ র তাকে জন্মদিনের উইশ করেছে এই বলে যে একটা সিনেমা কে কিভাবে বক্স-অফিসে সাফল্যমন্ডিত করে তুলতে হয়, তা তার থেকে ভালো বোধহয় কেউ জানে না।

পাশাপাশি নেটিজেনরা আরও একটা খবর উত্তেজিত হয়ে পড়ে। বেলাশেষে সিনেমাটির সাফল্যের পর শিবপ্রসাদ নন্দিতার জুটি সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বেলাশুরু নামের একটি সিক্যুয়েল বানানোর। সেইমতো শুরু হয়েছিল ছবির শুটিংও। কিন্তু শুটিং শেষ হওয়ার পরপরই মারা গিয়েছিলেন অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়।

এরপরই সিনেমাটি রিলিজ নিয়ে অনিশ্চয়তা বৃদ্ধি পায়। আপাতত করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের কারণে প্রেক্ষাগৃহে সিনেমাটি মুক্তি পাওয়ানো থেকে পরিচালকরা বিরত রয়েছেন তবে শিবপ্রসাদ এর পোস্ট এ নেটিজেনরা মনে করছেন সিনেমাটি এবার মুক্তি পেলেও পেতে পারে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button