বাংলা সিরিয়াল

‘খড়কুটো’র নকল করে তৈরি জি বাংলার ‘মিঠাই’, বিস্ফোরক অভিযোগ দর্শকদের! উত্তরে ক্ষোভে ফেটে পড়লেন ‘মিঠাই’ স্বয়ং

সন্ধ্যে হলেই স্টার জলসা, জি বাংলাসহ বাংলার প্রথম সারির টিভি চ্যানেলগুলির বিভিন্ন ধারাবাহিকে মজে উঠতেন বাংলার নারী সমাজ। করোনা আবহে এবং অতিমারীর কারণে হওয়া দেশজুড়ে লকডাউন এর সময় আরো বেশি করে বাংলার ঘরে ঘরে ও ড্রইংরুমে পৌঁছে গিয়েছিল এই ধারাবাহিক গুলি।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে রাজ্যে আবারো লকডাউন। তাই ফের আরো একবার টিভিমুখী হয়েছে এক বড় সংখ্যক দর্শক। তেমনি জি বাংলার ‘মিঠাই’ ধারাবাহিকটি হয়ে উঠেছে দর্শকের কাছে অত্যন্ত প্রিয়। বিগত বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে টিআরপি রেটিং এর দিক থেকে টপে আছে মিঠাই ধারাবাহিকটি।

তবে এবার দর্শকদের বিস্ফোরক অভিযোগের মুখে পড়তে হলো সিরিয়ালের নির্মাতা এবং কলাকুশলীদের এক বড় সংখ্যা দর্শকের অভিযোগ সিরিয়ালটির প্লট অনেকাংশেই স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘খরকুটো’ থেকে নকল করা।দুটো ধারাবাহিকেই একই রকম পারিবারিক সম্পর্ক, ফ্যামিলি ড্রামা এবং চরিত্রের আমদানি ঘটেছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই নিয়ে নেটিজেনদের রোষের মুখেও পড়তে হয় মিঠাই ধারাবাহিকের সঙ্গে যুক্ত অভিনেতা-অভিনেত্রীদের।শনিবার এই অভিযোগের প্রত্যুত্তরে অভিযোগকারী দর্শকদের একহাত নিলেন সিরিয়ালটি ডিরেক্টর এবং নায়িকা স্বয়ং।

সিরিয়ালের ডিরেক্টর রাজেন্দ্র প্রসাদ দাস এক বেসরকারি সংবাদমাধ্যমকে জানান, বারবার কেন নকল করার অভিযোগ উঠেছে তাদের বিরুদ্ধে তা তিনি জানেন না। সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি বলেন তার ধারাবাহিক টিআরপি রেটিংয়ের শীর্ষস্থানে, কারণ তার ধারাবাহিকে বাস্তব চরিত্র এবং ঘটনা দেখানো হচ্ছে।

অপরদিকে পর্দার ‘মিঠাই’ অর্থাৎ সৌমিতৃষা জানান এর আগেও স্টার জলসার ‘মোহর’ ধারাবাহিকটির সঙ্গে তাদের তুলনা করা হচ্ছিল। এখন খরকুটোর সঙ্গে তুলনা হচ্ছে। পাশাপাশি তিনি এও জানান, সিরিয়ালের প্লটে আংশিক মিল থাকলেই তাকে নকল বলে লাগিয়ে দেওয়া যায় না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button